1

বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা করলে সমুচিত জবাব দেয়া হবে- এনামুল হক শামীম

নিজস্ব প্রতিবেদক:

 

পানি সম্পদ উপমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামীম বলেছেন, বিএনপি আবারও জ্বালাও-পোড়াও করার ষড়যন্ত্র করছে। মনে রাখবেন সহিংসতা করে দেশে যদি কোনো বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে চান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন ব্যাহত করতে চান, তাহলে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে দাঁতভাঙা জবাব দিতে আমরা প্রস্তুত। দেশের ভিতর যদি কোনো বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অপচেষ্টা করলে সমুচিত জবাব দেয়া হবে।

 

আজ মঙ্গলবার শরীয়তপুরের সখিপুরের ডিএমখালী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের বর্ধিত সভা এবং সদস্য নবায়ন ও সংগ্রহ কর্মসূচিতে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির তিনি বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

 

উপ-মন্ত্রী শামীম বলেন, সরকার পতনের আন্দোলনের কথা আমরা গত ১৩ বছর ধরেই শুনে আসছি। যে দলের নেতারা পুরুষ হয়েও নারীর বেশে বোরখা পরে আদালতে জামিনের জন্য হাজির হয়। যাদের ওপর তাদের নেতাকর্মীদের আস্থা নেই, তারা কতটুকু কি করতে পারবে। তাদের শক্তি, সামর্থ্য সম্পর্কে আমরা জানি, জনগণও জানে। কিন্তু আন্দোলনের নামে তারা যদি বিশৃঙ্খলা, জ্বালাও- পোড়াও বা আগে যেভাবে মানুষ পোড়ানোর মহোৎসব করেছে সেটি করার অপচেষ্টা করে, জনগণকে সাথে নিয়ে তা প্রতিহত করা হবে।

 

এনামুল হক শামীম বলেন, উন্নত সমৃদ্ধশালী বাংলাদেশ, মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে রক্ষায় আওয়ামীলীগ আছে, থাকবে। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা মানবিক বলেই সাজাপ্রাপ্ত আসামি খালেদা জিয়াকে বাসায় থাকার সুযোগ দিয়েছেন। সুতরাং মানবতাকে দূর্বলতা ভাবার সুযোগ নেই। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা মাঠে নামলে পালাবার পথ পাবেন না। নাশকতার কোনো পরিকল্পনা করলে কোনো প্রকার ছাড় দেয়া হবে না।

 

উপমন্ত্রী বলেন, বিএনপি-জামায়াত সবসময় বাংলাদেশের ইতিহাস ও ঐতিহ্য ধ্বংস করার চেষ্টায় থাকে। দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে দেশে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা লাগানোর চেষ্টা করে। এদের একটাই স্বপ্ন দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে রাজনৈতিক ফায়দা লোটা। এদের একটাই লক্ষ্য দেশে পাকিস্তানি ও তালেবানি শাসন কায়েম করা। বিএনপি-জামায়াতের কোনো ষড়যন্ত্র নির্বাচনকে বানচাল করতে পারবেনা। তাদের সব অপরাজনীতি প্রতিহত করতে আমাদেরকে সব সময় সজাগ থাকতে হবে।

 

শামীম আরো বলেন, দেশের সংবিধান অনুযায়ী যথাসময়ে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনে কাউকে আনা না আনা সরকারের দায়িত্ব না। আইন অনুযায়ী, নির্বাচন পরিচালনার সম্পূর্ণ দায়িত্ব নির্বাচন কমিশনের উপর ন্যস্ত। তবে আমরা প্রত্যাশা করি, গণতান্ত্রিক চেতনায় বিশ্বাসী সকল রাজনীতিক দল নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে এবং বিএনপি ষড়যন্ত্রের পথ পরিহার করে জনকল্যাণের রাজনীতিতে নিজেদের নিয়োজিত করবে।

 

ডিএমখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জসিম উদ্দিন মুন্সীর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহমেদ বেপারীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, সখিপুর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ভেদরগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব হুমায়ুন কবির মোল্যা, জেলার বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক কাওসার আহমেদ তকি, থানার সাধারন সম্পাদক আতিকুর রহমান মানিক সরকার, সহ-সভাপতি জিতু মিয়া বেপারী, কোহিনূর সুলতানা দোলা, নাসির আহম্মেদ সরদার, উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান আকলিমা আক্তার লিপি, ডিএমখালী ইউপি চেয়ারম্যান মহসিন হক আবু বেপারী, কাঁচিকাটা ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল আমিন দেওয়ান প্রমূখ।

 




মনপুরায় সংঘবদ্ধ চোর চক্রের প্রধানসহ এক সহযোগী আটক ॥ স্বর্নালংকার উদ্ধার, ২ দিনের রিমান্ড  

মনপুরা (ভোলা) সংবাদদাতা ॥

ভোলার মনপুরায় সংঘবদ্ধ চোর চক্রের প্রধানসহ ১ সহযোগ কে আটক করেছে পুলিশ। এই সময় ওই চক্রের কাছ থেকে চুরি হওয়া ৮ আনা স্বর্নের চেইন, দেশীয় অস্ত্রসহ চেতনানাশক ঔষধ উদ্ধার করা হয়।

 

ঈুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, প্রতি রাতেই একসাথে তিন-চার বাড়ি চুরি করতো সংঘবদ্ধ চোর চক্র। এতে দিশেহারা হয়ে পড়ে স্থানীয়রাসহ পুলিশ প্রশাসন। অবশেষে ওসি সাইদ আহেমেদর নের্তৃত্বে বিশেষ অভিযানে সংঘবদ্ধ চোর চক্রের প্রধানসহ এক সহযোগিকে আটক করে পুলিশ।

 

মঙ্গলবার সকাল ১০ টায় আটককৃত চোর চক্রের প্রধানসহ এক সহযোগিকে মনপুরা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোর্পদ করে পুলিশ। পরে পুলিশ ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন করলে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক নুরু মিয়া ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

 

পুলিশ বিশেষ অভিযানে, সোমবার সকালে ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার কুঞ্জেরহাট এলাকা থেকে চোর চক্রের প্রধান আল-আমিন ও মনপুরার দক্ষিণ সাকুচিয়া ইউনিয়নের রহমানপুর গ্রাম থেকে সহযোগি সোহেল কে পুলিশ আটক করে

আটককৃতরা হলেন, চোর চক্রের প্রধান আল-আমিন (২৫)। তার বাড়ি ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার হাসাননগর ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডে। অপর সহযোগি মনপুরা উপজেলার দক্ষিণ সাকুচিয়া ইউনিয়নের রহমানপুর গ্রামের বাসিন্দা মোঃ সোহেল (৩০)।

 

 

এই ব্যাপারে মনপুরা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সাইদ আহমেদ জানান, চক্রের প্রধানসহ এক সহযোগিকে আটক করে আদালতে প্রেরণ করা হয়। চক্রের অপর দুই সদস্যকে ধরতে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

 

 




ভোলায় পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সহজিকরণ বিষয়ক কর্মশালা

ভোলা প্রতিনিধি।।

 

ভোলায় পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সহজিকরণ বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

 

সোমবার (৩০ মে) বিকাল ভোলা জেলা পুলিশের আয়োজনে পুলিশ অফিস সম্মেলন কক্ষে অনলাইন পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সহজিকরণ এর লক্ষ্যে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদনকারীদের সাথে এক নাগরিক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।

 

ভোলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম বিপিএম, পিপিএম, সভাপতিত্বে অনলাইন পুলিশ ক্লিয়ারেন্স এর সহজিকরণের লক্ষ্যে ভোলা জেলা পুলিশ এর নেওয়া বিভিন্ন পদক্ষেপ উপস্থিত সকলকে অবহিত করা হয়। পাশাপাশি তিনি সকলের মতামত ও পরামর্শ শুনেন। এসময় উপস্থিত অনেকেই পাসপোর্ট অফিসের বিভিন্ন দালাল চক্রের ব্যপারে পুলিশ সুপার’কে অবহিত করলে তিনি ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস প্রদান করেন।

 

এসময় পুলিশ সুপার বলেন, ভোলা একটি বিচ্ছিন্ন দ্বীপ হলেও এখানে তিন দিনেই পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট প্রদান করা সম্ভব এবং সে লক্ষেই কাজ করে যাচ্ছে ভোলা পুলিশ। পুলিশ সুপারের কার্যালয়, ভোলায় প্রতি সপ্তাহের রবিবার হতে বৃহস্পতিবার এর মধ্যে জমাকৃত পুলিশ ক্লিয়ারেন্স এর আবেদন পত্রসমূহ পুলিশ ভেরিফিকেশন সম্পন্ন করে পরবর্তী শনিবার প্রতিস্বাক্ষরের জন্য পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ঢাকায় প্রেরণ করা হবে। প্রতিস্বাক্ষর শেষে সপ্তাহের প্রতি সোমবার বিকাল ০৩.০০ ঘটিকায় প্রার্থী বা তার মনোনীত প্রতিনিধিদের মধ্যে ওয়ানস্টপ পুলিশ ক্লিয়ারেন্স শাখা, পুলিশ সুপার কার্যালয়, ভোলা হতে বিতরণ করা হবে। এতে সপ্তাহের বৃহস্পতিবার আবেদন করেও তিন দিনের মধ্যেই পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট পাওয়া যাবে।

 

তিনি আরো বলেন, খুব শীঘ্রই ওয়ান ওয়ে এসএমএস সার্ভিস চালু করে প্রত্যেক আবেদনকারীকে এসএমএসের মাধ্যমে তার পুলিশ ক্লিয়ারেন্স এর আবেদন প্রাপ্তি, ভেরিফিকেশন সম্পন্ন এবং তা সংগ্রহের তারিখ ও সময় জানিয়ে দেওয়া হবে। এতে আবেদন কারীদের ভোগান্তি আরো কমবে। তিনি পুলিশ ক্লিয়ারেন্স প্রাপ্তিতে কোন দালাল বা প্রতারক বা অন্য কারও দারস্ত না হওয়ার জন্য সকলকে অনুরোধ করেন। এছাড়াও তিনি পাসপোর্ট ভেরিফিকেশন দ্রুত করার জন্য কর্মকৌশল ঠিক করছেন মর্মে সকলকে অবহিত করেন।

 

পরে তিনি উপস্থিত অনলাইনে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স আবেদনকারীদের হাতে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট প্রদান করেন।

 

এ সময় ডিআইও-১ জেলা বিশেষ শাখা ভোলা সহ বিভিন্ন পুলিশ কর্মকর্তা ও পুলিশ ক্লিয়ারেন্স প্রার্থীগণ উপস্থিত ছিলেন।




চরফ্যাশনে সাবেক মেম্বারের বাড়িতে দূধর্ষ ডাকাতি॥ স্বর্ণালঙ্কারসহ নগদ অর্থ লুট 

নিজস্ব সংবাদদাতা, চরফ্যাশন॥ ভোলার চরফ্যাশনের আছলামপুর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের সাবেক মেম্বার মোঃ ওবায়দুল হকের বাড়িতে সোমবার গভীর রাতে দূধর্ষ ডাকাতি হয়েছে। ডাকাতরা অস্ত্রের মুখে পরিবারের সবাইকে হাত-পা বেঁধে রেখে স্বর্ণালঙ্কারসহ নগদ অর্থ লুটে নিয়ে যায়।

 

জানাযায়, মুখোশধারী চার ডাকাত ওবায়দুল হকের রান্নাঘরের পিছনের দরজা ভেঙে ঘরে প্রবেশ করে ৪০ মিনিট পর্যন্ত তাদের অস্ত্রের মুখে পরিবারের সবাইকে হাত-পা বেঁধে রেখে ৮ ভরি স্বর্ণালঙ্কার, একটি মোবাইল সেট ও নগদ ১৫ হাজার টাকা লুটে নিয়ে চলে যায়। এ ঘটনায় মঙ্গলবার দুপুরে ওবায়দুল হক বাদী হয়ে অজ্ঞাত চার দস্যুর বিরুদ্ধে চরফ্যাশন থানায় মামলা করেছেন। সহকারী পুলিশ সুপারসহ থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

চরফ্যাশন থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ মনির হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।




অনুমোদনহীন ব্যবসায়ীদের চাল মজুদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে মন্ত্রিসভার নির্দেশ 

সময়ের চিত্র ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে মন্ত্রিসভা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে যেকোনো ধরনের চাল মজুদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দিয়েছেন। মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, চালের মৌসুমে পর্যবেক্ষণ এবং তদারকি চলা সত্ত্বেও, চালের দাম বৃদ্ধির কারণ খুঁজে বের করতে বাণিজ্য, খাদ্য ও কৃষিমন্ত্রী এবং তাদের সচিবদের দ্রুত পদক্ষেপ নিতে বলা হয়েছে। আজ বিকেলে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের বোর্ড কক্ষে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে তিনি বলেন, চাল ও তেলের দাম নিয়ন্ত্রণে বাজার ব্যবস্থা নিয়ে আজ মন্ত্রিসভা আলোচনা করেছে।

এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, সরকারি অনুমতি বা অনুমোদন না নিয়ে অনেক কোম্পানি চাল ব্যবসায় নিয়োজিত রয়েছে, মন্ত্রিসভা কোনো কোম্পানির অননুমোদিত চালের ব্যবসা বা যে কোনো ধরনের চালের মজুদ বন্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে। আনোয়ারুল বলেন, একটি কোম্পানি একটি মেমোরেন্ডাম অফ অ্যাসোসিয়েশনের (এমওএ) একটি নির্দিষ্ট ব্যবসা করছে, বাংলাদেশে একই এমওএ দিয়ে অনেক ব্যবসা করা হচ্ছে। তিনি বলেন, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় অন্য দেশগুলোর সঙ্গে বিষয়টি খতিয়ে দেখে, তারা এমওএ দেওয়ার ক্ষেত্রে কী করছে, তা খুঁজে বের করতে বলেছে। মন্ত্রিসভা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অবৈধভাবে চাল মজুদকারী ব্যক্তি এবং কোথায় তারা মজুদ করেছে তাও বের করতে বলেছে।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, সরকার তেলের মতো মজুদকৃত চালও কোথায় আছে,তা খুঁজে বের করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, চাল আমদানি নিয়ে কোনো আলোচনা হয়নি।




২৪ ঘন্টায় করোনায় আক্রান্ত ৩৪ জন, মৃত্যু ১ জন

নিজস্ব প্রতিবেদক:

 

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এবং রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর)-এর তথ্যানুযায়ী গতকাল রবিবার সকাল ৮টা থেকে সোমবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৩৪ জনের শরীরে করোনা সংক্রমণ পাওয়া গেছে। নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে রোগী শনাক্তের হার শূন্য দশমিক ৬৩ শতাংশ। এ সময় ৫ হাজার ৩৭০ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে একজন মারা গেছে। এ পর্যন্ত ২৯ হাজার ১৩১ জন করোনায় মৃত্যুবরণ করেছেন। করোনাভাইরাস আক্রান্তদের মধ্যে এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১৯ লাখ ২ হাজার ৫৯১ জন।

 




নিম্নবিত্ত বা বস্তিবাসীকে সাশ্রয়ী মূল্যে পানি দেয়ার নির্দেশনা স্থানীয় সরকার মন্ত্রীর

নিজস্ব প্রতিবেদক:  

 

অভিজাত এলাকায় পানির মূল্য বাড়িয়ে নিম্নবিত্তের মানুষ বা বস্তিবাসীকে সাশ্রয়ী মূল্যে পানি দিতে ওয়াসাকে নির্দেশনা দিয়েছেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম।

 

শুধু পানি নয় হোল্ডিং ট্যাক্স, গ্যাস ও বিদ্যুৎসহ অন্যান্য ইউটিলিক্যাল সার্ভিসের মূল্যও জোনভিত্তিক নির্ধারণ করা উচিত বলে জানান তিনি।

 

আজ সোমবার রাজধানীতে ঢাকা ওয়াসার হলরুমে আয়োজিত ‘জয়েন্ট রিসার্চ প্রজেক্ট অন কোভিড-১৯ বাই ঢাকা ওয়াসা এন্ড আইসিডিডিআর,বি’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা জানান।

 

মন্ত্রী বলেন, ভরতুকি দিয়ে কোনো প্রতিষ্ঠান চলতে পারে না। গরিব মানুষের নিকট থেকে রাজস্ব নিয়ে ধনীদের কম দামে পানি দেয়ার সুযোগ নেই। পানির দাম বাড়ানো বা কমানো ওয়াসা কর্তৃপক্ষের বিষয়। ২৫ টাকায় পানি উৎপাদন করে ১৫ টাকায় দেয়া সমর্থন যোগ্য নয়। নিম্নবিত্তের মানুষকে সাবসিডি দিয়ে পানি দেয়া যেতে পারে। কিন্তু যারা উচ্চবিত্ত বা অভিজাত এলাকায় বসবাস করেন তাদেরকে দেয়ার সুযোগ নেই। ‘ইকুইটেবল ডেভেলপমেন্ট’ প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

 

তিনি জানান, ওয়াসা নিরাপদ পানি উৎপন্ন করে থাকে। সেই পানি যখন পাইপ লাইনের মাধ্যমে সরবরাহ করা হয় তখন অনেকে অনৈতিকভাবে পাইপ ছিদ্র করে সংযোগ নেয়। কিন্তু ছিদ্র ঠিকমত জোড়া না নেয়ায় অথবা বাসায় পানির রিজার্ভ ট্যাংক বা ওভারহেড ট্যাংকের মাধ্যমে পানিতে ক্ষতিকর জীবাণু প্রবেশ করে। যা পরবর্তীতে সব জায়গায় ছড়িয়ে পড়ে।

 

নতুন পাইপ লাইন স্থাপনের পাশাপাশি যারা পাইপলাইন থেকে অবৈধভাবে সংযোগ দিচ্ছে বা নিচ্ছে তাদেরকে শাস্তির আওতায় আনার নির্দেশ দেন মোঃ তাজুল ইসলাম। তিনি বলেন, ঢাকা শহরের পানি সরবরাহের জন্য পুরনো পাইপ লাইনগুলো পরিবর্তন করে নতুনভাবে সংযোজন করা হচ্ছে যাতে করে জীবাণুমুক্ত পানি সরবরাহ করা সম্ভব হয়। পানিবাহিত বিভিন্ন রোগ থেকে মানুষকে বাঁচার জন্য সরকার বিভিন্ন সময় বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়েছে এবং এ ব্যাপারে সতর্ক রয়েছে।

 

প্রধান অতিধি বলেন, প্রকল্প নেয়ার সময় ফিজিবিলিটি স্টাডি, জায়গা অধিগ্রহণ অথবা লোন নেগোসিয়েশনে বছরের পর বছর চলে যায়, যা গ্রহণযোগ্য নয়। সব লোন নেয়া যাবে না। দেশের জন্য অথবা জিডিপিতে অবদান রাখবে এমন লোন নিয়ে প্রকল্প নিতে হবে। তিনি আরো বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিদেশিদের কাছ থেকে ভিক্ষা করে খাওয়ার জন্য দেশ স্বাধীন করেননি।

 

স্থানীয় সরকার মন্ত্রী করোনার সঙ্গে অন্যান্য কোনো ভাইরাস যাতে ওয়াসার পানিতে না থাকে সেই ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা দেন। ঢাকা ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার তাকসিম এ খানের সভাপতিত্বে সেমিনারে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আইসিডিডিআর,বি এর সাবেক নির্বাহী পরিচালক ড. জন ডি ক্লেমেন্‌স।




ভোলায় মাধ্যমিক পর্যায়ে শ্রেষ্ঠশিক্ষার্থী হয়েছেন ইফরাত ইশান

ভোলা প্রতিনিধি ।।

জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ-২০২২ এর ভোলা জেলার মাধ্যমিক পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ শিক্ষার্থী নির্বাচিত হয়েছেন ইফরাত জাহান ইশান। সে ভোলা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর দিবা শাখার একজন মেধাবী শিক্ষার্থী। গত ২৬ মে জেলা প্রশাসন ও জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস আয়োজিত জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ-২০২২ উপলক্ষে শ্রেষ্ঠ শিক্ষার্থী ক্যাটাগরিতে ইফরাত জাহান ইশান শ্রেষ্ঠ শিক্ষার্থী হিসেবে মনোনিত করেন। জেলা শিক্ষা অফিসের গবেষণা কর্মকর্তা নুরে আলম সিদ্দিকী এই তথ্য নিশ্চিত করেন।

ইশান আর বাবার নাম মো: ইসমাইল হোসেন সিকদার। তিনি ভোলা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক। মা সালমা বেগম একজন গৃহিনী। ৫ ভাই বোনের মধ্যে তৃতীয় ইফরাত ইশান। ইশানা পিএসসিতে ট্যালেন্টপুলে বৃত্তি পেয়েছে। তার এই সাফল্যে বিদ্যালয়ে এবং পরিবারে আনন্দের বন্যা বইছে। এলাকায় ব্যাপক আলোচনা চলছে যোগ্য পিতার যোগ্য মেয়ে। ইশানা জানায়, এই নির্বাচনটি মূলত করা হয়েছিল বিগত বছরগুলোর স্কুলের পরীক্ষার ফলাফল, স্কুলে উপস্থিতির শতকরা হার, বিভিন্ন ধরনের দক্ষতা যেমনঃ ক্রীড়া প্রতিযোগীতা, ছবি আঁকা, আবৃত্তি করা, রচনা লিখা, বিতর্ক করা, গান করা ইত্যাদি যাচাই ও এই সকল বিষয়ের অর্জন সমূহ উপস্থাপন, বার্ষিকীতে লেখার অভিজ্ঞতা, গার্ল গাইডের কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ, নেতৃত্বদানের ক্ষমতা, সামাজিক সংগঠন ও কর্মকান্ডে অংশগ্রহণ, নৈতিক দৃঢ়তা এবং আইসিটি বিষয়ে দক্ষতা এই সকল বিষয়ের উপর ভিত্তি করে। মানুষের সেবা করতে চাই, মানুষের মনে জায়গা করে নিতে চাই। আর বাবা-মায়ের স্বপ্ন পূরণ করতে চাই।

সহপাঠীদের কাছে সে খুব সহযোগী ও সহমর্মী। মেধাবী এ ছাত্রীর ভবিষ্যৎ প্রত্যাশা, বিদ্যালয়ের মানসম্মত ফলাফলসহ উচ্চ শিক্ষা লাভ করে দেশের সেবক হওয়া। ভবিষ্যতে সে একজন ভালো মনের মানুষ হিসেবে পরিচিতি পেতে চায় ইশানা। সে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও নির্বাচক মন্ডলীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছে। সে সকলের নিকট দোয়া প্রার্থী। ভোলা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এ কে এম সালাউদ্দিন বলেন, জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ ২০২২ এর ভোলা জেলার মাধ্যমিক পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ শিক্ষার্থী নির্বাচিত হয়েছেন ইফরাত জাহান ইশান। এতে আমরা অনেক খুশি এবং আনন্দিত। আগামীতেও এ ধারাবাহিতা রক্ষার্থে আমাদের আন্তরিক প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে। শিক্ষার্থীদের স্কুলে সুনাম রক্ষার জন্য ভালো ভাবে তৈরি করবো। জাতে তারা দেশ ও দশের সেবা করতে পারেন।

ইশান আর বাবার নাম মো: ইসমাইল হোসেন সিকদার বলেন, প্রথমেই মহান আল্লাহর প্রতি শুকরিয়া জানাই, আমার মেয়ে এই ধরনের সম্মাননা পাওয়ায়। একজন পিতা হিসাবে এটা আমার জন্য বড় প্রাপ্তির। সবার কাছে আমার মেয়ে জন্য দোয়া কামনা করছি যেন সে বড় হয়ে দেশের সেবা করতে পারেন।