৩ মোবাইল অপারেটরকে একীভূত লাইসেন্স দিলো বিটিআরসি

নিজস্ব প্রতিবেদক

বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) দেশের তিন মোবাইল অপারেটরের অনুকূলে একীভূত লাইসেন্স হস্তান্তর করেছে। অপারেটর কোম্পানিগুলো হলো- টেলিটক, গ্রামীণফোন ও রবি।

সোমবার (১১ মার্চ) রাজধানীর আগারগাঁওস্থ বিটিআরসি ভবনে আনুষ্ঠানিকভাবে এই লাইসেন্স প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, ‘রেগুলেটরি অ্যান্ড লাইসেন্সিং গাইডলাইন ফর সেলুলার মোবাইল সার্ভিসেস ইন বাংলাদেশ’ গাইডলাইনের আলোকে অপারেটরদের অনুকূলে ‘সেলুলার মোবাইল সার্ভিসেস অপারেটর লাইসেন্স’ এবং ‘রেডিও কমিউনিকেশন্স এপারেটাস লাইসেন্স ফর সেলুলার মোবাইল সার্ভিসেস’ শীর্ষক একীভূত লাইসেন্স প্রদান করা হলো।

এর ফলে পূর্বের টুজি, থ্রি জি, ফোর জি এবং তরঙ্গ ফির জন্য আলাদা লাইসেন্স এবং নির্দেশিকা পরিবর্তে সব বিষয়কে এক লাইসেন্সের আওতায় আনা হয়েছে। একীভূত লাইসেন্সে ফাইভ জি’র ক্ষেত্রে পর্যাপ্ত ‘একসেস’ তরঙ্গের প্রাপ্যতা ও ‘ব্যাকহল’ ফাইবারের পাশাপাশি পাবলিক অবকাঠামো ব্যবহারের অনুমতি, অফশোর ক্লাউড সুবিধা, রোল আউট বাধ্যবাধকতা, নেটওয়ার্ক নিরাপত্তা প্রভৃতি বিবেচনায় নেয়া হয়।

লাইসেন্স একীভূতকরণের ফলে আধুনিক উচ্চগতির ইন্টারনেট পাবে মোবাইল অপারেটররা।

বিটিআরসি চেয়ারম্যান প্রকৌ. মো. মহিউদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

তিনি বলেন, আধুনিক প্রযুক্তিকে বাদ দিয়ে দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়। তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহার করে স্বনির্ভর স্মার্ট বাংলাদেশ গড়া সরকারের লক্ষ্য।

বিটিআরসি চেয়ারম্যান প্রকৌ. মো. মহিউদ্দিন আহমেদ বলেন, মানুষের দোরগোড়ায় আধুনিক প্রযুক্তির টেলিযোগাযোগ সেবা পৌঁছে দিতে এই লাইসেন্সের গুরুত্ব অপরিসীম। এই লাইসেন্সের মাধ্যমে টুজি, থ্রি জি, ফোর জি এবং ফাইভ জি এমনকি এরপরেও যে প্রযুক্তি আসবে, সেগুলো নিয়ন্ত্রণ করা যাবে। যথাযথ নিয়মে নিলামের মাধ্যমে এই লাইসেন্স দেওয়া হয়েছে।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন স্পেকট্রাম বিভাগের কমিশনার প্রকৌ. শেখ রিয়াজ আহমেদ, অর্থ, হিসাব ও রাজস্ব বিভাগের কমিশনার ড. মুশফিক মান্নান চৌধুরী, লিগ্যাল অ্যান্ড লাইসেন্সিং বিভাগের কমিশনার মো. আমিনুল হক, প্রশাসন বিভাগের মহাপরিচালক আবদুল্লাহ আল মামুন, স্পেকট্রাম বিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান জুয়েল, সিস্টেমস অ্যান্ড সার্ভিসেস বিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ খলিল-উর-রহমান, ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড অপারেশন্স বিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল কাজী মুস্তাফিজুর রহমান, লিগ্যাল অ্যান্ড লাইসেন্সিং বিভাগের মহাপরিচালক আশীষ কুমার কুণ্ডু, ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের ঊধ্বর্তন কর্মকর্তারা, কমিশনের বিভিন্ন বিভাগের পরিচালকরা এবং মোবাইল অপারেটরদের প্রতিনিধিরা।

এই বিভাগের আরো খবর