সিরিয়ায় ইসরাইলের বিমান হামলায় ১১ ইরানি সেনা নিহত

বিদেশ ডেস্ক:
সিরিয়ায় ইসরাইলের চালানো বিমান হামলায় ইরানের ইসলামিক বিপ্লবী গার্ডের ১১ সেনা নিহত হয়েছেন। শুক্রবার (২৯ ডিসেম্বর) সিরিয়ার দামেস্ক আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইসলাইলী বোমারু বিমান এই হামলা চালায় বলে জানিয়েছে মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল আরাবিয়া। তবে এ বিষয়ে এখনো কোনো মন্তব্য করেনি ইসরাইল।

আল আরাবিয়া এক প্রতিবেদনে জানায়, বৃহস্পতিবার(২৯ ডিসেম্বর) দামেস্ক বিমানবন্দরে একটি উচ্চপদস্থ প্রতিনিধি দলকে স্বাগত জানাতে যান এ সেনারা। ওই সময় বিমান হামলার ঘটনা ঘটে। এতে ১১ জন নিহত হন।
এর আগে সিরিয়ার রাষ্ট্রায়ত্ত সংবাদমাধ্যম ও দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় দক্ষিণ সিরিয়া ও দামেস্কের কাছে বিমান হামলার তথ্য প্রকাশ করে।

সিরিয়ায় হামলার ব্যাপারে সাধারণত কোনো ধরনের মন্তব্য বা তথ্য দেয় না ইসরাইল। তবে ইসরাইল একাধিকবার জানিয়েছে, প্রেসিডেন্ট বাশার-আল আসাদকে সমর্থকারী চিরশত্রু ইরানকে কখনো তারা সিরিয়ায় উপস্থিতি বৃদ্ধি করতে দেবে না।

ইসলামিক বিপ্লবী গার্ডের যে ১১ সেনা নিহত হয়েছেন তারা সিরিয়ায় পূর্বাঞ্চলে অবস্থিত ইরান সমর্থিত সামরিক গোষ্ঠীগুলোর দেখভালের দায়িত্বে ছিলেন।

এর আগে সোমবার (২৫ ডিসেম্বর) সিরিয়ার দামেস্কের উপকণ্ঠে ইসরাইলি বোমা হামলায় নিহত হয়েছেন ইরানের শীর্ষস্থানীয় সেনা কমান্ডার সাইদ রাজি মুসাভি। তিনি সিরিয়া ও লেবাননে ইরানের ইসলামিক রেভল্যুশনারি গার্ড কোরের (আইআরজিসি) সবচেয়ে পুরোনো কমান্ডারদের একজন।

ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি মুসাভির ওপর হামলাকে ‘ইহুদিবাদী শাসকদের’ হতাশার বহিঃপ্রকাশ বলে অভিহিত করেছেন। এর মধ্য দিয়ে আঞ্চলিকভাবে ইসরাইল কোণঠাসা হয়ে পড়েছে বলেও প্রমাণিত হয়েছে। তিনি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, এর হত্যার ঘটনার জন্য ইসরাইলকে অবশ্যই মূল্য দিতে হবে।

লেবানন, সিরিয়া, ইয়েমেন ও ইরাকসহ মধ্যপ্রাচ্যের বেশ কয়েকটি দেশে বিপ্লবী গার্ডের সেনাদের সরব উপস্থিতি রয়েছে। এসব দেশের সশস্ত্র গোষ্ঠীদের বিভিন্নভাবে সহায়তা করে থাকেন তারা।

এই বিভাগের আরো খবর