সাকিবের অনুপস্থিতিতে ,অধিনায়ক লিটন দাস

ক্রীড়া ডেস্ক:

চলতি ওয়ানডে বিশ্বকাপে চরমভাবে ব্যর্থ হয়েছে বাংলাদেশ। নয় ম্যাচের ৭টিতেই পরাজিত হয়েছে টাইগাররা। হেরেছে বাছাইপর্ব খেলে এক যুগ পর বিশ্বমঞ্চে খেলতে আসা নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষেও। টুর্নামেন্টে ব্যর্থ অভিযান শেষে গতকাল দেশে ফিরেছে লাল-সবুজ দল।

যদিও বিশ্বকাপে পাড়ি জমানোর আগেই সাকিব জানিয়েছিলেন, বৈশ্বিক এ আসরের পরই নেতৃত্বের ভার ছেড়ে দেবেন তিনি। তাই মাত্র দুই জয় নিয়ে হতাশ টাইগারদের পরবর্তী অধিনায়ক কে হবেন এটা নিয়ে চলছে গুঞ্জন।

এদিকে বিশ্বকাপের অধ্যায় চুকিয়ে আগামী ২১ নভেম্বর ঢাকায় পা রাখবে নিউজিল্যান্ড দল। আগামী ২৮ নভেম্বর থেকে সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে মাঠে গড়াবে দুই দলের প্রথম টেস্ট। এ ছাড়া সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ ম্যাচ হবে ৬ ডিসেম্বর থেকে মিরপুর শেরে-ই বাংলা স্টেডিয়ামে। দুই ম্যাচ সিরিজের এ সফরের জন্য ১৫ সদস্যের দল ঘোষণা করেছে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড।

এ স্কোয়াডে এজাজ প্যাটেল, মিচেল স্যান্টনারের সঙ্গে রাচিন রবীন্দ্র ও ইশ সোধির মতো একাধিক স্পিনার রয়েছেন। তবে এই সিরিজের জন্য এখনও দল ঘোষণা করেনি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। আর আসন্ন এই সিরিজে কে হবেন টাইগার দলপতি, তা নিয়েই চলছে নানান জল্পনা-কল্পনা।

মঙ্গলবার (১৪ নভেম্বর) মিরপুরে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হন বিসিবি পরিচালক তানভীর আহমেদ টিটু। সেখানে তার কাছে জানতে চাওয়া হয়, সাকিবের অনুপস্থিতিতে কে দায়িত্ব পালন করবেন। জবাবে টিটুর দাবি, সহ-অধিনায়ক লিটন দাসই সামলাবেন দায়িত্ব।

তিনি জানান, সাকিবের যেহেতু চোট আছে। যতদিন পুরোপুরি সেরে না উঠবে, সেই পর্যন্ত সে খেলবে না আমরা জানি। আমাদের এখন পর্যন্ত সহকারী অধিনায়ক হিসেবে লিটন কুমার দাস আছেন, এর মধ্যে যদি নতুন কোনো সিদ্ধান্ত না হয়, তাহলে সে থাকবে। নতুন কেউ হলে সেটাও জানতে পারবেন। দল ঘোষণার সময় সেটি বিস্তারিত জানিয়ে দেয়া হবে।

এদিকে ঘরের মাঠে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তাসকিনের সার্ভিস মিস করবে বাংলাদেশ। এই সিরিজে তাসকিন ছাড়াও থাকছেন না ওপেনার তামিম ইকবাল। এই সিরিজের প্রথমটিতে থাকছেন না টাইগার অধিনায়ক সাকিব আল হাসানও। বিশ্বকাপে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে আঙুলে চোট পেয়ে আসর থেকে ছিটকে যান বাংলাদেশের অধিনায়ক। তবে দ্বিতীয় টেস্ট দিয়ে তিনি মাঠে ফিরতে পারেন।

ইনজুরির কারণে থাকবেন না আরেক পেসার এবাদত হোসেনও। যে কারণে বেশ দুর্বল হয়ে পড়বে লাল-সবুজের পেস ইউনিট। তাই সবকিছু বিবেচনায় শরিফুল ইসলাম, খালেদ আহমেদ, রেজাউর রহমান রাজাদের সঙ্গের তরুণ পেসার হাসান মাহমুদকেও টেস্ট বোলিংয়ে যোগ করা হতে পারে।

বিসিবি সূত্র বলছে, এ রকমই পরিকল্পনা নির্বাচক প্যানেল এবং টিম ম্যানেজমেন্টের। তবে টেস্টের জন্য তরুণ পেসারও খোঁজা হচ্ছে। টেস্টের পেস ইউনিটে বিকল্প বাড়াতেই এ উদ্যোগ।

 

এই বিভাগের আরো খবর