রাশিয়ায় কনসার্টে হামলা: নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১১৫, গ্রেপ্তার ১১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

রাশিয়ার রাজধানী মস্কোর উপশহর ক্রাসনোগর্স্কের এক সিটি হলে কনসার্টের আগে বন্দুকধারীদের গুলিতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১১৫ জন হয়েছে বলে ক্রেমলিন জানিয়েছে।

 

এ ঘটনায় সন্দেহভাজন চার বন্দুকধারীসহ ১১ জনকে গ্রেপ্তার করেছে রাশিয়ার নিরাপত্তা বাহিনী।

 

ক্রেমলিন জানিয়েছে, রাশিয়ার কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা এফএসবি-র প্রধান আলেকসান্দার বর্তনিকোভ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনকে জানিয়েছেন, যাদের আটক করা হয়েছে তাদের মধ্যে ‘চার সন্ত্রাসী’ আছে আর এফএসবি তাদের সহযোগীদের শনাক্ত করতে কাজ করে যাচ্ছে।

 

রাশিয়ার তদন্ত কমিটি জানিয়েছে, হামলায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১১৫ জনে দাঁড়িয়েছে। শুক্রবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় সামরিক বাহিনীর মতো পোশাক পরা অজ্ঞাত বন্দুকধারীরা স্বয়ংক্রিয় অস্ত্র দিয়ে সঙ্গীতানুষ্ঠানে আগত লোকজনের দিকে নির্বিচার গুলি ছোড়ে।

 

রাশিয়ার আইনপ্রণেতা আলেকসান্দার কাইনেস্তিন জানিয়েয়েছেন, হামলাকারীরা একটি রেনো গাড়িতে করে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়, পরে শুক্রবার রাতে মস্কো থেকে ৩৪০ কিলোমিটার দক্ষিণপশ্চিমে ব্রাইয়ানস্ক অঞ্চলে গাড়িটিকে দেখতে পায় পুলিশ। তাদের থামার সঙ্কেত দিলে তা না মেনে এগিয়ে যায় তারা।

 

গাড়ি নিয়ে তাদের পিছু ধাওয়া করে দুইজনকে আটক ও গ্রেপ্তার করে পুলিশ। আরও দুইজন পাশের বনে পালিয়ে যায়। ক্রেমলিনের ভাষ্য অনুযায়ী, পরে তাদেরও আটক করা হয়।

 

মস্কোয় কনসার্টে হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১১৫, গ্রেপ্তার ১১

কাইনেস্তিন জানান, গাড়িটিতে তাজিকিস্তানের কয়েকটি পাসপোর্ট, পিস্তল ও স্বয়ংক্রিয় রাইফেলের একটি ম্যাগাজিন পাওয়া গেছে।

 

মধ্য এশিয়ার মুসলিম প্রধান দেশ তাজিকিস্তান আগে সোভিয়েত ইউনিয়নের অংশ ছিল।

 

ইসলামিক স্টেটের আফগানিস্তান শাখা ইসলামিক স্টেট খোরসান (আইএসআএস-কে) হামলার দায় স্বীকার করেছে বলে তাদের বার্তা সংস্থা আমাকের টেলিগ্রাম পেইজে জানানো হয়েছে, মার্কিন গোয়েন্দারা এমনটি নিশ্চিত করেছেন বলে রয়টার্সকে জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের এক কর্মকর্তা।

 

রয়টার্স জানিয়েছে, ২০০৪ সালে বেসলান স্কুলে হামলার ঘটনার পর থেকে এটিই রাশিয়ায় হওয়া সবচেয়ে প্রাণঘাতী হামলার ঘটনা।

 

সোভিয়েত আমলের রক সঙ্গীতের দল ‘পিকনিক’ মস্কোর শহরতলীর ৬২০০ আসনের ক্রোকাস সিটি হলে অনুষ্ঠান শুরু করার ঠিক আগে বন্দুকধারীরা সেখানে আগত দর্শকদের ওপর গুলিবর্ষণ শুরু করে। হলটি তখন কানায় কানায় ভরা ছিল।

 

যাচাই করা ভিডিওতে দেখা গেছে, সঙ্গীতানুষ্ঠান উপভোগ করতে আগত দর্শকরা তাদের আসন গ্রহণ করছেন, তখনই একের পর এক গুলির শব্দের মধ্যে তারা চিৎকার করে বের হওয়ার দরজার দিকে ছুটতে শুরু করেন। অন্য ভিডিওতে দেখা গেছে, কয়েক ব্যক্তি লোকজনের দলের ওপর গুলিবর্ষণ করছে। গুলিবিদ্ধ কিছু মানুষ জমে থাকা রক্তের মধ্যে নিথরভাবে পড়ে আছে।

 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক প্রত্যক্ষদর্শী রয়টার্সকে বলেছেন, “হঠাৎ আমাদের পেছনে বিকট শব্দ হতে লাগলো- গুলির শব্দ। একটানা গুলির শব্দ। হুড়োহুড়ি শুরু হয়ে গেল। সবাই এসকেলেটরের দিকে দৌড়ে যাচ্ছিল। সবাই চিৎকার করছিল আর দৌড়াচ্ছিল।”

 

শুক্রবারের এ ঘটনায় আরও অন্তত ১২০ জন আহত হয়েছে বলে রাশিয়ার স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

 

এক বিবৃতিতে আইএস বলেছে, “তাদের যোদ্ধারা মস্কোর শহরতলীতে হামলা চালিয়েছে। কয়েকশজনকে হত্যা ও আহত করেছে এবং স্থানটির ব্যাপক ক্ষতিসাধন করেছে। তারপর তারা নিরাপদে তাদের ঘাঁটিতে ফিরেছে।”

 

যুক্তরাষ্ট্র বলেছে, আইএসের ওই গোষ্ঠীটির দাবি বিশ্বাসযোগ্য। কিন্তু রাশিয়া এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেনি।

এই বিভাগের আরো খবর