যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সম্পর্ক আরও দৃঢ় হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক:

যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে পোশাক রপ্তানিতে বাংলাদেশসহ শীর্ষ পাঁচ দেশের বিষয়ে তদন্ত শুরু করেছে দেশটির আন্তর্জাতিক বাণিজ্য কমিশন (ইউএসআইটিসি)। এ বিষয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন সাংবাদিকরা।

জবাবে হাছান মাহমুদ বলেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তদন্ত করছে, কথাটা সঠিক নয়। তাদের সঙ্গে লেবার রাইটসের উন্নয়ন নিয়ে আমাদের সঙ্গে বহুদিন ধরে আলাপ-আলোচনা চলছে এবং সেই আলাপ-আলোচনার অংশ হিসেবে কয়েকটি সংস্থা আমাদের সঙ্গে বসেছে। লেবার রাইটস নিয়ে এটা রেগুলার প্রসেস। এটা আগেও হয়েছে। অর্থাৎ কর্মপরিবেশ উন্নয়ন, শ্রম পরিবেশ উন্নয়ন। এ নিয়ে আমাদের মধ্যে আলাপ-আলোচনা আছে, চলছে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে বাংলাদেশের সম্পর্ক আগামীতে এগিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি আরও দৃঢ় হবে বলেও প্রত্যাশা প্রকাশ করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। সোমবার (১১ মার্চ) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সমসাময়িক বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এসব কথা জানান মন্ত্রী।

সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের চিঠি ও সরকারপ্রধানের চিঠির ফিরতি জবাবের প্রসঙ্গ টেনে মন্ত্রী বলেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন চিঠি লিখে দু’দেশের সম্পর্কে দ্বিতীয় পর্যায়ে এবং নতুন উচ্চতায় নিয়ে যাওয়ার অভিপ্রায় ব্যক্ত করেছেন। প্রধানমন্ত্রীও ফিরতি চিঠিতে সম্পর্ক উন্নয়নের কথা, আরও দৃঢ় করার কথা, বহুমাত্রিক করার কথা বলেছেন। আমাদের সম্পর্ক ভবিষ্যতের দিনগুলোতে আরও সুন্দর হবে, আরও দৃঢ় হবে, এগিয়ে যাবে।

রোজায় দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতির বিষয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, দেশে কোনো সংকট না থাকলেও অসাধু মজুতদাররা বাজারে কৃত্রিম সংকট তৈরি করছে। এখন যেমন করে জনগণকে তারা জিম্মি করছে, ঠিক তেমনিভাবে জনগণও যদি তাদের বিরুদ্ধে সিন্ডিকেট করে ফেলেন, তবে তারা কোথায় যাবেন।

এ সময় বাজারে সিন্ডিকেটের দৌরাত্ম্য নিয়ে আক্ষেপ প্রকাশ করে মন্ত্রী বলেন, অন্যান্য দেশে দেখা যায় কোনো উৎসব এলে সেখানে পণ্যের মূল্য কমিয়ে দেয়। অথচ আমাদের দেশে উল্টো। কিছু মজুতদার আছে তারা কৃত্রিম সংকট তৈরি করেন। আমাদের দেশে ব্যবসায়ীদের বড় একটা অংশ এ কাজ করে। কোনো একটা উৎসব এলে, কোনো একটা উপলক্ষ্য পেলে, মানুষের প্রয়োজনীয়তা বাড়লে অসৎ মনোবৃত্তি নিয়ে তারা পণ্যের মূল্য বাড়িয়ে দেয়।

পেঁয়াজের উদাহরণ টেনে হাছান মাহমুদ বলেন, এখন পেঁয়াজের কোনো সংকট নেই। বেশিরভাগ পণ্যেরই কোনো সংকট নেই। এরপরও পণ্যের মূল্য বাড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে।

এরপরই সিন্ডিকেট ব্যবসায়ীদের হুঁশিয়ার করে তিনি বলেন, সরকার এ ব্যাপারে অত্যন্ত সতর্ক। আমাদের বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী কাজ করছেন। সরকারের অন্যান্য বিভাগও কাজ করছে। অসাধু ব্যবসায়ী, অসাধু মজুতদারদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে বদ্ধপরিকর সরকার।

এই বিভাগের আরো খবর