ভোলায় যুবলীগ নেতাকে পিটিয়ে  মোটরসাইকেল ছিনতাই

ভোলা প্রতিনিধি:

ভোলার তজুমদ্দিন উপজেলায় মো. নুরনবী নামের এক যুবলীগ নেতাকে প্রকাশ্যে পিটিয়ে নগদ ৬০ হাজার টাকা, মোটরসাইকেল, সরকারি পুকুর লিজ নেয়ার প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ও মোবাইল ফোন ছিনতাই করে নেয়ার অভিযোগ ওঠেছে।

এ সময় তাকে বেধম মারধর করছে সন্ত্রাসীরা। এ বিষয়ে থানায় অভিযোগ দিতে গেলে সন্ত্রাসীদের বাঁধার মুখে তিনি থানায় অভিযোগ দিতে পারেনি। হামলার শিকার মো. নুরনবী উপজেলার শম্ভুপুর ইউনিয়ন (উত্তর) যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও ওই ইউনিয়নের ৩নম্বর ওয়ার্ডের গোলকপুর গ্রামের বাসিন্দা। আজ মঙ্গলবার (০৭ ফেব্রæয়ারী) দুপুর ১২টার দিকে তজুমদ্দিন উপজেলা পরিষদ চত্বরে এ ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে।

হামলার শিকার যুবলীগ নেতা মো. নুরনবী অভিযোগ করে জানান, তিনি সকালের দিকে বাড়ি থেকে মোটরসাইকেল যোগে সরকারি একটি পুকুর লিজ নেয়ার জন্য তজুমদ্দিন উপজেলা পরিষদে যাচ্ছিলেন। এ সময় তিনি দুপুর ১২টার দিকে উপজেলায় পরিষদ চত্বরে উপস্থিত হলে সেখানে আগ থেকে অবস্থান করা চিহ্নিত সন্ত্রাসী আলাউদ্দিন ও ফারুকের নেতৃত্বে আরো ৪-৫জন সন্ত্রাসী তাঁর মোটরসাইকেলের গতিরোধ করে। পরে তাকে থামিয়ে এলোপাথারি মারধর করে তার ব্যবহৃত ওয়ালটন মোটরসাইকেল, দুইটি মোবাইল ফোন, পুকুর লিজ নেয়ার প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ও পকেটে থাকা নগদ ৬০ হাজার টাকা ছিনতাই করে নিয়ে যায়। পরে তিনি এ বিষয়ে অভিযোগ দিতে থানায় যেতে চাইলে থানার সামনে থানা সন্ত্রাসীদের বাঁধার মুখে থানায় ডুকতে পারেননি।

এ ব্যাপারে তজুমদ্দিন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাকসুদুর রহমান মুরাদ জানান, তিনি মোটরসাইকেল ছিনতাইসহ এরকম একটি ঘটনা শুনে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছেন। তবে সেখানে গিয়ে মোটরসাইকেল পাওয়া যায়নি। তিনি আরো জানান, এ বিষয়ে এখনো কেউ লিখিত অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করবেন।

এই বিভাগের আরো খবর