1

বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা করলে সমুচিত জবাব দেয়া হবে- এনামুল হক শামীম

নিজস্ব প্রতিবেদক:

 

পানি সম্পদ উপমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামীম বলেছেন, বিএনপি আবারও জ্বালাও-পোড়াও করার ষড়যন্ত্র করছে। মনে রাখবেন সহিংসতা করে দেশে যদি কোনো বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে চান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন ব্যাহত করতে চান, তাহলে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে দাঁতভাঙা জবাব দিতে আমরা প্রস্তুত। দেশের ভিতর যদি কোনো বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অপচেষ্টা করলে সমুচিত জবাব দেয়া হবে।

 

আজ মঙ্গলবার শরীয়তপুরের সখিপুরের ডিএমখালী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের বর্ধিত সভা এবং সদস্য নবায়ন ও সংগ্রহ কর্মসূচিতে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির তিনি বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

 

উপ-মন্ত্রী শামীম বলেন, সরকার পতনের আন্দোলনের কথা আমরা গত ১৩ বছর ধরেই শুনে আসছি। যে দলের নেতারা পুরুষ হয়েও নারীর বেশে বোরখা পরে আদালতে জামিনের জন্য হাজির হয়। যাদের ওপর তাদের নেতাকর্মীদের আস্থা নেই, তারা কতটুকু কি করতে পারবে। তাদের শক্তি, সামর্থ্য সম্পর্কে আমরা জানি, জনগণও জানে। কিন্তু আন্দোলনের নামে তারা যদি বিশৃঙ্খলা, জ্বালাও- পোড়াও বা আগে যেভাবে মানুষ পোড়ানোর মহোৎসব করেছে সেটি করার অপচেষ্টা করে, জনগণকে সাথে নিয়ে তা প্রতিহত করা হবে।

 

এনামুল হক শামীম বলেন, উন্নত সমৃদ্ধশালী বাংলাদেশ, মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে রক্ষায় আওয়ামীলীগ আছে, থাকবে। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা মানবিক বলেই সাজাপ্রাপ্ত আসামি খালেদা জিয়াকে বাসায় থাকার সুযোগ দিয়েছেন। সুতরাং মানবতাকে দূর্বলতা ভাবার সুযোগ নেই। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা মাঠে নামলে পালাবার পথ পাবেন না। নাশকতার কোনো পরিকল্পনা করলে কোনো প্রকার ছাড় দেয়া হবে না।

 

উপমন্ত্রী বলেন, বিএনপি-জামায়াত সবসময় বাংলাদেশের ইতিহাস ও ঐতিহ্য ধ্বংস করার চেষ্টায় থাকে। দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে দেশে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা লাগানোর চেষ্টা করে। এদের একটাই স্বপ্ন দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে রাজনৈতিক ফায়দা লোটা। এদের একটাই লক্ষ্য দেশে পাকিস্তানি ও তালেবানি শাসন কায়েম করা। বিএনপি-জামায়াতের কোনো ষড়যন্ত্র নির্বাচনকে বানচাল করতে পারবেনা। তাদের সব অপরাজনীতি প্রতিহত করতে আমাদেরকে সব সময় সজাগ থাকতে হবে।

 

শামীম আরো বলেন, দেশের সংবিধান অনুযায়ী যথাসময়ে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনে কাউকে আনা না আনা সরকারের দায়িত্ব না। আইন অনুযায়ী, নির্বাচন পরিচালনার সম্পূর্ণ দায়িত্ব নির্বাচন কমিশনের উপর ন্যস্ত। তবে আমরা প্রত্যাশা করি, গণতান্ত্রিক চেতনায় বিশ্বাসী সকল রাজনীতিক দল নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে এবং বিএনপি ষড়যন্ত্রের পথ পরিহার করে জনকল্যাণের রাজনীতিতে নিজেদের নিয়োজিত করবে।

 

ডিএমখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জসিম উদ্দিন মুন্সীর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহমেদ বেপারীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, সখিপুর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ভেদরগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব হুমায়ুন কবির মোল্যা, জেলার বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক কাওসার আহমেদ তকি, থানার সাধারন সম্পাদক আতিকুর রহমান মানিক সরকার, সহ-সভাপতি জিতু মিয়া বেপারী, কোহিনূর সুলতানা দোলা, নাসির আহম্মেদ সরদার, উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান আকলিমা আক্তার লিপি, ডিএমখালী ইউপি চেয়ারম্যান মহসিন হক আবু বেপারী, কাঁচিকাটা ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল আমিন দেওয়ান প্রমূখ।