প্রেমিক থাপ্পড় দেওয়ায় লঞ্চ থেকে ঝাঁপ দিলেন প্রেমিকা

বরিশাল প্রতিনিধি:

কথা কাটাকাটির জেরে থাপ্পড় দেওয়ার কারণে লঞ্চ থেকে কীর্তনখোলা নদীতে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন এক তরুণী। লঞ্চটি ছিল বরিশাল-ঢাকা রুটের এমভি মানামী।

মঙ্গলবার (১৮ মার্চ) রাত পৌনে ৯টায় বরিশাল নৌবন্দরে এ ঘটনা ঘটে। নৌপুলিশ ও ঘাটে উপস্থিত থাকা লোকজন ওই তরুণীকে নদী থেকে তুলে হাসপাতালে নিয়ে যান।

এমভি মানামী লঞ্চের মাস্টার আসাদুজ্জামান জানান, এক যুবক আর ওই তরুণী লঞ্চের নিচতলার সম্মুখভাগে দাঁড়িয়ে কথা বলছিলেন। তারা দুজনে ঝগড়াও করছিলেন। কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে যুবকটি ওই তরুণীকে থাপ্পড় মারেন। এরপরই তরুণী নদীতে ঝাঁপ দেন। তবে এক লোক সঙ্গে সঙ্গে নদীতে ঝাঁপিয়ে পড়ে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান তাকে।

তিনি আরও বলেন, নদীতে ঝাঁপ দেওয়া তরুণী আমাদের লঞ্চের যাত্রী ছিল না। ঝাঁপিয়ে পড়া তরুণীকে দ্রুত চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। কী কারণে এ ঘটনা ঘটেছে তা আমরা জানি না।

তবে সেখানে উপস্থিত মারুফ নামে একজন বলেন, প্রথমে দুজনের উচ্চবাচ্য শুনি। এর পর চড়-থাপ্পড়ের ঘটনা ঘটলে মেয়েটি নদীতে ঝাঁপ দেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে সদর নৌ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল জলিল বলেন, লঞ্চ পল্টুন ত্যাগ করার কিছুক্ষণ আগের ঘটনা। তরুণী নদীতে ঝাঁপ দিলে নৌপুলিশের সদস্য ও ঘাটে উপস্থিত থাকা লোকজন তাৎক্ষণিক নদীতে পড়া তরুণীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান।
এই কর্মকর্তা বলেন, ওই তরুণী কী কারণে এ ঘটনা ঘটিয়েছে তা পরিবারের পক্ষ থেকে বলেনি।

এই বিভাগের আরো খবর