প্রধানমন্ত্রী জেগে আছেন বলেই বাংলাদেশের মানুষ নিশ্চিন্তে ঘুমাতে পারে: এনামুল হক শামীম

নিজস্ব প্রতিবেদক:

 

পানি সম্পদ উপমন্ত্রী ও আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামীম এমপি বলেছেন, বঙ্গবন্ধু থেকে বঙ্গবন্ধু কন্যা পরম্পরার এক সার্থক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। বঙ্গবন্ধু শুরু করেছিলেন, তাঁর কন্যা শেখ হাসিনার হাতে তা বিকশিত হয়ে বাস্তবায়িত হচ্ছে। বঙ্গবন্ধু যে আধুনিক প্রযুক্তি শুরু করেছিলেন আজ তাই ডিজিটাল বাংলাদেশ। ভবিষ্যতের স্মার্ট বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধু যুদ্ধাপরাধীদের বিচার শুরু করে ছিলেন আর তাঁরই কন্যা শেখ হাসিনা শেষ করেছেন। বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা একজন আজন্ম লড়াকু যোদ্ধা। তিনি অবিরাম জেগে আছেন বলেই বাংলাদেশ নিশ্চিতে ঘুমাতে পারছে।

 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৭তম জন্মদিন উপলক্ষে শুক্রবার  শরীয়তপুরের নড়িয়া ও সখিপুরে আওয়ামীলীগ আয়োজিত আলোচনা সভা, দোয়া ও কেক কাটা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এসময় নড়িয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের স্থায়ী কার্যালয়ের উদদ্বোধন করেন উপমন্ত্রী।

 

উপমন্ত্রী বলেন, প্রতিকূল পরিবেশে লড়াকু শেখ হাসিনা যুদ্ধ করেই আজকের অবস্থায় এসেছেন। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দেশে এসেছিলেন বলেই বাংলাদেশ আজ উন্নত সমৃদ্ধ দেশে পরিণত হয়েছে। যারা লাল সবুজ পতাকার বদলে চাঁদ তারা পতাকা চায়, সেই অসুর শক্তি আবারও আগামী নির্বাচনকে ঘিরে ছোবল মারতে উদ্ধত। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধভাবে তাদেরকে প্রতিহত করতে হবে।

 

আওয়ামীলীগের সাবেক এই সাংগঠনিক সম্পাদক বলেন, বঙ্গবন্ধু যেমন একটি দর্শন, একটি আদর্শ ঠিক তেমনি শেখ হাসিনাও একটি দর্শন ও আদর্শের নাম। বঙ্গবন্ধু জন্ম না নিলে বাংলাদেশ হতো না। ঠিক তেমনি শেখ হাসিনা না থাকলে বাংলাদেশের অগ্রযাত্রা ও অবিশ্বাস্য উন্নয়ন হতো না। বাংলাদেশে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা নিহিত আগে বলেই দেশে কেউ সংখ্যালঘু নয়। আগামী নির্বাচনে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তিকে আবারও ক্ষমতায় আনার জন্য সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি।

 

এনামুল হক শামীম বলেন, একটা সময় মানুষ বলতো- ‘আওয়ামী লীগের জন্যশেখ হাসিনা অপরিহার্য।’ এখন মানুষ বলে- ‘শুধু আওয়ামী লীগের জন্যই নয়, বাংলাদেশের জন্যও শেখ হাসিনা অপরিহার্য’। বাংলাদেশের মানুষের ভাগ্য শেখ হাসিনার ভাগ্যের সাথে জড়িত। বাংলাদেশের সকল উন্নয়নই শেখ হাসিনার কারণে সম্ভব হয়েছে।

 

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ছাবেদুর রহমান খোকা সিকদার, সহ-সভাপতি ওহাব বেপারী, মহিলা লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি তাহমিনা খাতুন শিলু, জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান এম এ কাইউম পাইক, আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপ কমিটির সদস্য জহির সিকদার, নড়িয়া উপজেলা চেয়ারম্যান একেএম ইসমাইল হক, পৌরসভার মেয়র আবুল কালাম আজাদ, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা ফজলুল হক মাল, সাধারন সম্পাদক হাসানুজ্জামান খোকন,সখিপুর থানার সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমান মানিক সরকার প্রমূখ। এসময় বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

এই বিভাগের আরো খবর