তাড়াশে বিএনপি নেতার বিরুদ্ধে প্রধান শিক্ষককে প্রকাশ্যে পেটানোর অভিযোগ

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি।।

সিরাজগঞ্জের তাড়াশে প্রকাশ্যে বাজারের মধ্যে প্রধান শিক্ষককে পেটালেন বিএনপির নেতা আব্দুর রশিদ বকুল ও তার ছেলেরা।
এ ঘটনায় তাড়াশ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন হামলার শিকার দিঘি সগুনা এম এ আর জুনিয়র গালর্স স্কুলের প্রধান শিক্ষক শহিদুল ইসলাম।

মঙ্গলবার (১১ অক্টোবর) তাড়াশ পৌর বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

দিঘি সগুনা এম এ আর জুনিয়র গালর্স স্কুলের (ভারপ্রাপ্ত) প্রধান শিক্ষক শহিদুল ইসলাম জানান, মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে তাড়াশ মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসে যাওয়ার পথে তাড়াশ পৌর বাজারের পৌছালে দিঘি সগুনা গ্রামের বিএনপির নেতা আব্দুর রশিদ বকুল, তার ছেলে সাব্বির আহমেদ ও সোহেল রানা আমার পথ আটকিয়ে কোন কিছু বুঝে ওঠার আগেই এলোপাতাড়ি কিল ঘুষি মেরে জখম করে ।

এসময় স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসলে তার ছেলে সাব্বির ও সোহেল রানা বলে তুই ঠিকমত চাকুরী করিস। না হলে তোর জীবনে বেচে থাকার ভাগ্য হবে না। এই বলে পালিয়ে যায়। পরে আমি বাদী হয়ে বিএনপি নেতা আব্দুর রশিদ বকুল ও তার ছেলেদের বিরুদ্ধে তাড়াশ একটি সাধারণ ডায়েরি করেছি।

এ বিষয়ে উপজেলার মাগুড়া বিনোদ ইউনিয়নের দিঘি সগুনা গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য ইদ্রিস আলী মন্ডল বলেন, বিএনপি নেতা আব্দুর রশিদ বকুল গ্রামের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের অর্থ আত্মসাতসহ নানা অপকর্মে জড়িত। এ কারনে তিনি ও তার পরিবার দীর্ঘদিন যাবত গ্রাম থেকে বিতারিত। বিভিন্ন সুত্র ধরে প্রধান শিক্ষককে পিটিয়ে আহত করেছেন। এ ঘটনার সঠিক ও দৃস্টান্ত মুলক শাস্তি দাবি করছি।

অভিযুক্ত বিএনপি নেতা আব্দুর রশিদ বকুলের বক্তব্য জানতে বার বার চেস্টা করেও তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয় নি।

এ বিষয়ে তাড়াশ থানার এএসআই মোঃ খোরশেদ আলম জানান, প্রধান শিক্ষককে মারধরের ঘটনায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন। সরেজমিনে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

এই বিভাগের আরো খবর