জনগণকে সম্পৃক্ত করার সক্ষমতা হারিয়েছে বিএনপি: নিউইয়র্ক টাইমস

ডেস্ক রির্পোট:

মার্কিন প্রভাবশালী গণমাধ্যম নিউইয়র্ক টাইমস জানিয়েছে, বাংলাদেশের বিরোধী দল বিএনপি সরকারবিরোধী আন্দোলনে, জনগণকে সম্পৃক্ত করার সক্ষমতা হারিয়েছে। ৭ জানুয়ারির নির্বাচনে নিরঙ্কুশ বিজয়ের মাধ্যমে টানা চতুর্থবারের মতো বাংলাদেশের সরকার প্রধান হতে যাচ্ছেন আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা।

বিরোধী দল হিসেবে বিএনপির কার্যকরী ভূমিকা রাখতে ব্যর্থ হওয়া ও সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলনেও দলটির সক্ষমতা হারানোর বিষয়টি কারণ হিসেবে তুলে ধরা হয়েছে প্রতিবেদনে।

আগামীকালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোট গ্রহণের দিকে তাকিয়ে আছে বিশ্বের শক্তিধর সব দেশ। সেসব দেশের সংবাদ ও গণমাধ্যমে প্রকাশ করা হচ্ছে একের পর এক বিশ্লেষনধর্মী প্রতিবেদন ও নিবন্ধ। তারই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশের নির্বাচন নিয়ে বিশেষ প্রতিবেদন ছেপেছে যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাবশালী গণমাধ্যমটি।

এতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ সামরিক অভ্যুত্থান ও হত্যাকাণ্ডের পথ পেছনে ফেলে সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে চলেছে। তবে ১৭ কোটি মানুষের দেশটিতে এবারের নির্বাচনে ততটা প্রতিদ্বন্দিতা হচ্ছে না। নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনের আন্দোলনে ব্যর্থ বিএনপির নির্বাচন বয়কট করা।

নিউইয়র্ক টাইমস বলছে, বিএনপি নির্বাচনের আগের দিন থেকে ৪৮ ঘণ্টার হরতাল ডেকেছে। তাতে সহিংসতার আশঙ্কায় নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে। রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়, নির্বাচনের পরে যদি বিএনপি সহিংসতার পথ বেছে নেয় তাহলে তারা আবারো সরকারের ফাঁদে পা দেবে দলটি।

প্রভাশালী এই মার্কিন পত্রিকাটি বলছে, শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বে গার্মেন্টস রপ্তানি শিল্পে বিনিয়োগের সুফলসহ অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতে প্রতিবেশী ভারতকে ছাড়িয়েছিল। তার নেতৃত্বে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, শ্রমশক্তিতে নারীর অংশগ্রহণ এবং জলবায়ু বিপর্যয় মোকাবেলায় বাংলাদেশ বড় ধরনের অগ্রগতি দেখিয়েছে।

প্রতিবেদনে জাতির পিতা সপরিবারে নিহত হওয়া, বিরোধী দলে থাকাকালে শেখ হাসিনা ওপর গ্রেনেড হামলার বিষয়টি তুলে ধরে বলা হয়। অন্যদিকে, জিয়াউর রহমান অভ্যুত্থানের মাধ্যমে ক্ষমতা দখল বিএনপি প্রতিষ্ঠা করেন।

সময়ের চিএ/ইস
এই বিভাগের আরো খবর