চিতলমারীতে কালো বাজারে সার বিক্রির অভিযোগ

অরুন কুমার সরকার:

বাগেরহাটের চিতলমারীতে লাইসেন্স ছাড়া কালো বাজারে সার বিক্রি সহ দোকান ঘরে সার রাখার অভিযোগ উঠেছে চরবানিয়ারী ইউনিয়নের ঠেঠার চর গ্রামের মৃতঃ আবেদ আলী মৃধার ছেলে নুরুল মৃধার বিরুদ্ধে।

নুরুল নাজিরপুর উপজেলা এবং চিতলমারী উপজেলা সীমান্তবত্তী ঠেঠার চর এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে অবৈধ ভাবে বিভিন্ন ব্রান্ডের সরকারি সার কালো বাজারে বিক্রি করে আসছেন বলে, উপজেলার লাইসেন্স প্রাপ্ত সার ডিলারদের অভিযোগ রয়েছে। কালো বাজারে সার বিক্রিতে একদিকে যেমন সরকার হারাচ্ছেন রাজস্ব। অপর দিকে লাইসেন্স ধারী সার ডিলারগণ হচ্ছেন ক্ষতি গ্রস্ত। এমন অভিযোগ অনেকের।

শুধু কালো বাজারে নয় কৃষকদের কাছে বাড়তী মুল্যে সার বিক্রি করার অভিযোগও রয়েছে নুরুল মৃধার বিরুদ্ধে। ১৪ জানুয়ারি(রবিবার) বিকেলে সরেজমিনে দেখা গেছে নুরুল মৃধার একটি মুদি দোকানের পাশাপাশি অপর একটি ঘরে বিভিন্ন ব্রান্ডের পর্যাপ্ত পরিমান সারের মজুদ রয়েছে। এসময় সারের ভিডিও এবং ছবি সংগ্রহ করতে গেলে তিনি রিপোর্ট না করতে সাংবাদিকদের আর্থিক ভাবে ম্যানেজ করার চেষ্টা করেন। এতে দ্বিমত পোষন করায়, নানা ভাবে ফাঁসাতে ভয়ভীতি প্রদর্শন করেন। এবং ক্যামেরাও মোবাইলের ছবি ডিলেড করতে তার সাঙ্গপাঙ্গ নিয়ে তেড়ে আসে।

এ সংক্রান্তে চিতলমারী ্উপজেলা ফার্টিলাইজার অ্যাসোসিয়েশন এর সভাপতি মোঃ সোহেল শেখ বলেন, কালো বাজারে এবং লাইসেন্স বিহীন সার বিক্রি করা ও মজুদ রাখা অপরাধ। তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ জানাচ্ছি।
এ ব্যপারে উপজেলা কৃষি অফিসার সিফাত আল মারুফ জানান, আমিও অভিযোগ পেয়েছি। সরেজমিনে গিয়ে তাকে অবৈধ ভাবে সার বিক্রি করতে নিষেধ করেছি। তা সত্যেও যে, তিনি সার বিক্রি অব্যহত রেখেছেন। এটা জানা ছিলনা। প্রয়োজনে ইউএনও স্যারকে বলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সময়ের চিএ/ ইস
এই বিভাগের আরো খবর