চরফ্যাশনে তিন কি.মি.কাঁচা রাস্তায় ভোগান্তি  এলাকাবাসীর 

চরফ্যাশন (ভোলা) প্রতিনিধি:

 

ভোলার চরফ্যাশন উপজেলাধীন হাজারীগঞ্জ ইউনিয়ন। এই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বাজার মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সামান্য উত্তর দিকে এবং অধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম ডিগ্রী কলেজ এর একটু দক্ষিণ পাশে ৮ ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডের প্রায় ৩ কিলোমিটার কাঁচা রাস্তা।

শুধু রাস্তার দুপাশ ঘেঁষে প্রায় ৫ শতাধিক পরিবারের বসবাস।তিন কি.মি.কাঁচা রাস্তায় দুই ওয়ার্ডের প্রায় ৫ হাজার বাসিন্দা চরম ভোগান্তিতে রয়েছে। বর্ষায় এ মাত্রা আরো বাড়িয়েছে। কোন গাড়ি তো দূরে থাক, হেঁটে পার হওয়াই মুশকিল। হাঁটু কাঁদাপানির রাস্তা একটু পরপর খালের মতো খাদ সৃষ্টি হয়েছে।

কিছু যায়গায় আবার ধান রোপণের উপযোগী ক্ষেতের মতো। তবুও প্রয়োজনের তাগিদে এই রাস্তা দিয়েই চলাচল করতে হচ্ছে স্কুল-কলেজের ছাত্রছাত্রীসহ ওয়ার্ডবাসীদের।

এতে দূর্ভোগের অন্ত নেই তাদের। সবচেয়ে বেশি বিপদে রয়েছে স্কুল কলেজগামী শিক্ষার্থী ও রোগীরা। অ্যাম্বুলেন্স আসার সুযোগ না থাকায় গর্ভবতী মা বোনদের প্রানহানীর মতো ঘটনাও রয়েছে এখানে।

মনির হোসেন নামে একজন পথচারী জানান,গতকয়েকদিন আগে তার অসুস্থ বোনকে হাসপাতালে নিতে অ্যাম্বুলেন্স খবর দুলেও রাস্তার কারণে আসেনি অ্যাম্বুলেন্স। সঠিক সময়ে তার মামাতো বোনকে চিকিৎসা দিতে না পারায় তার মৃত্যু হয়েছে। তিনি মনে করেন রাস্তা ভালো থাকলে সঠিক সময়ে হাসপাতালে নিলে তার বোন মারা যেত না।

এই রাস্তাটির দক্ষিণ পাশেই চেয়ারম্যান বাজার মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে। স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পথে ষষ্ঠ শ্রেণির হাফছা ও পঞ্চম শ্রেণীর তামান্না নামের দুই শিশু শিক্ষার্থীর সাথে কথা বল্লে তারা জানায়, বৃষ্টি হলে রাস্তায় পানি জমে থাকে এবং কাদামাটির কারণে শিশু শিক্ষার্থীরা প্রতিদিন স্কুলে যেতে পারে না মাঝেমধ্যে খুব কষ্ট করে স্কুলে যায় তারা। তবে রাস্তাটি পাকা করার দাবী জানিয়েছেন তারাও।

অধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম ডিগ্রী মহাবিদ্যালয়ের এইচএসসি পরীক্ষার্থী মো.তামিম জানান,গত বৃহস্পতিবার সকালে পরিক্ষা কেন্দ্রে যাওয়ার সময় মাঝ রাস্তায় হোঁচট খেয়ে কাদামাটিতে পড়ে তার পোষাক নষ্ট হওয়ায় নিদিষ্ট সময়ে পরীক্ষা কেন্দ্রে পৌছাতে পারেনি।

কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মো.জাহিদুল ইসলাম সবুজ জানান, চরফ্যাশন উপজেলায় ব্যাপক উন্নয়নের পরেও এই রাস্তাটিতে উন্নয়নের ছোঁয়া পড়েনি,কারণ হিসেবে তিনি বলেন এখানকার কোনো নেতারাই এমপি মহোদয়কে রাস্তাটির কথা বলেনি। এলাকায় এই রাস্তাটি ছাড়া আর কোনো কাঁচা রাস্তা নেই দাবি করে তিনি দ্রুত সময়ের মধ্যে রাস্তাটি নির্মাণের জন্য ভোলা-৪ চরফ্যাশন ও মনপুরা আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব এমপির সুদৃষ্টি কামনা করেন।

 

দীর্ঘ ভোগান্তিতে অতিষ্ঠ সাধারণ মানুষের প্রাণের দাবী সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এবং যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব এমপি এলাকারবাসীর এ দূ্র্ভোগ নিরসনে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নিবেন বলে দাবি করেন এলাকাবাসী।

 

এই বিভাগের আরো খবর