Home ভোলা চরফ্যাশন চরফ্যাশনের ঢালচরে আ’লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষ, আহত ১০, দলীয় কার্যালয় ভাংচুর ।। গ্রেফতার...

চরফ্যাশনের ঢালচরে আ’লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষ, আহত ১০, দলীয় কার্যালয় ভাংচুর ।। গ্রেফতার -১

76
0
SHARE

সময়ের চিত্র রিপোর্ট॥ ভোলার চরফ্যাশনের ঢালচর বাজারে মঙ্গলবার রাতে আওয়ামী লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে ১০ জন আহত হয়েছে। ভাংচুর হয়েছে দলীয় কার্যালয়। আহতদের মধ্যে লোকমান, আঃ হালিম, শাহে আলম, কাউছার, বেলায়েত, জুয়েল, মহি উদ্দিন, মেহেদীকে চরফ্যাশন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় মোস্তফা মেম্বার বাদী হয়ে ১১ জনকে আসামী করে দক্ষিণ আইচা থানায় একটি মামলা করেছেন। ওই মামলায় থানা পুলিশ কাউছার নামের একজন গ্রেফতার করে বুধবার আদলতে সোপর্দ করেছেন। আদালতের বিজ্ঞ বিচারক তার জামিন দিয়েছেন।

ঢালচর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের আহবায়ক আবুল কালাম মেম্বার জানান, ঢালচরের খালের দু’পাড়ে দুটি মৎস্য ঘাটসহ বাজার ছিল। উত্তর পাড়ের বাজারটি নদীতে ভেঙে গেলে ওই বাজারটি মাঝের চরে স্থাপন করা হয়। দক্ষিণ পাড়ের বাজারটি ২০/২৫টি মৎস্য আড়ৎসহ চলমান আছে। সেখানে আওয়ামীলীগ কার্যলয়ও রয়েছে। ওই বাজারে মাঝখানে সরকারীভাবে স্থাপিত লাইট পোস্ট রয়েছে। মঙ্গলবার বিকেলে ওই লাইট পোস্টটি উত্তোলন করতে ইউপি চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক আবদুস সালাম হাওলাদার লোক পাঠায়। বাজারের লোকজন ও আওয়ামী লীগের কর্মীদের বাধাঁমুখে তা তুলে নিতে পারেনি। এতে ক্ষুব্দ হয়ে ইউপি চেয়ারম্যান আবদুস সালাম হাওলাদার সন্ধার পরে ১০/১২ জন লোকসহ ওই বাজারে এসে গালমন্ধ করতে থাকে এনিয়ে স্থানীয় কয়েক জন আওয়ামী লীগ কর্মীরা গাল মন্দ বন্ধ করতে নিষেধ করলে তাদের মার পিট করে। এসময় তারা দলীয় অফিসের মধ্যে গিয়ে আশ্রয় লিনে সেখানে গিয়েও তাদের মারপিট করে। পরে দলীয় অফিস ভাংচুর করেন।

এ প্রসংগে ইউপি চেয়ারম্যান আবদুস সালাম হাওলাদার জানান, লাইট পোস্টটি নতুন বাজারের জন্য বরাদ্দ। কালাম মেম্বারের লোকজনের দাবী তাদের বাড়ির দরজায় রাখতে হবে। ল্যাম্প পোস্টটি আনতে গেলে তারা আমার উপর হামলা করে এসময় আমার ৪/৫ জন কর্মী আহত হয়। এ ঘটনাকে আড়াল করতে তারা দলীয় অফিস ভাংচুরের মিথ্যা অভিযোগ করে।

দক্ষিণ আইচা থানার পুলিশ উপ পরিদর্শক শামীম হোসেন জানান- লাইট পোষ্ট পুরাতন বাজার থেকে নতুন বাজারে স্থাপন নিয়ে দু’গ্রুপের সংঘর্ষ হয়। এ ঘটনায় মোস্তফা মেম্বার বাদী হয়ে ১১ জনকে আসামী করে দক্ষিণ আইচা থানায় একটি মামলা করেছেন। থানা পুলিশ কাওছার নামের এক আসামীকে গ্রেফতার করে আদলতে সোপর্দ করেছেন।

দক্ষিণ আইচা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাখাওয়াত হোসেন এর সত্যতা এর সত্যতা নিশ্চিত করেন।

 

 

 

 

image_print