Home খেলার খবর অ্যাম্বুলেন্স দেরিতে পৌঁছানোয় ম্যারাডোনার মৃত্যু!

অ্যাম্বুলেন্স দেরিতে পৌঁছানোয় ম্যারাডোনার মৃত্যু!

63
0
SHARE

ডেস্ক ॥ বৃহস্পতিবার নিজের জন্মশহর বুয়েন্স আইরেসের উপকণ্ঠে অবস্থিত সমাধিস্থলে সমাহিত করা হয়েছে সদ্য প্রয়াত কিংবদন্তি ফুটবলার দিয়েগো ম্যারাডোনাকে। যেখানে চিরনিদ্রায় শায়িত রয়েছেন ম্যারাডোনার বাবা দিয়েগো ম্যারাডোনা চিতোরো (১৯২৭-২০১৫) এবং মা দালমা সালভাদোরা ফ্রান্সো (১৯৩০-২০১১)। মা-বাবার পাশেই দাফন করা হয়েছে ম্যারাডোনাকে।

তবে দাফনের আগেই বড়সড় এক অভিযোগ এনেছেন ম্যারাডোনার আইনজীবী মাতিয়াস মোরলা। তার মতে, ম্যারাডোনার মৃত্যুর পেছনে দায় রয়েছে লা প্লাতা আইপেনসা ক্লিনিকের। যেখানে ভর্তি ছিলেন ম্যারাডোনা। তার মৃত্যুর দিন এ ক্লিনিকের অ্যাম্বুলেন্স আসতে ৩০ মিনিট দেরি করায় পরিস্থিতি হাতের বাইরে চলে গেছে বলে অভিযোগ এনেছেন মোরলা।

তার মতে, অ্যাম্বুলেন্সের এত সময় দেরি করে ম্যারাডোনার বাড়িতে পৌঁছানো একপ্রকারের অপরাধমূলক কাজ। তাই এ বিষয়ে পূর্ণাঙ্গ তদন্তের আহ্বান জানিয়েছেন ম্যারাডোনার আইনজীবী ও কাছের বন্ধু মাতিয়াস মোরলা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেয়া এক আনুষ্ঠানিক বিবৃতিতে এ কথা লিখেছেন মোরলা।

বুধবার রাতে আর্জেন্টিনার রাজধানী বুয়েন্স আইরেসে নিজ বাসায় হার্ট অ্যাটাক করে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন ফুটবল ইতিহাসের এ মহানায়ক। মাত্র কয়েকদিন আগেই রক্তক্ষরণজনিত কারণে মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচার করা হয়েছিল।

কয়েকদিন হাসপাতালে থাকার পর ডাক্তাররা তার নিজ বাসায়ই পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করেছিলেন। যেখানে উন্নতির দিকেই যাচ্ছিল ম্যারাডোনার স্বাস্থ্যের অবস্থা। কিন্তু বুধবার হার্ট অ্যাটাক করেন আর্জেন্টাইন এই কিংবদন্তি। যেখান থেকে আর ফেরা হয়নি।

মোরলার দাবি, হার্ট অ্যাটাক করার পর যদি দ্রুততম সময়ের মধ্যে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পর্যবেক্ষণে নেয়া হতো ম্যারাডোনাকে, তাহলে অন্য কিছু হলেও হতে পারত। এছাড়া মৃত্যুর আগে প্রায় ১২ ঘণ্টা কোন চেকআপ বা চিকিৎসকের সহায়তা পাননি ম্যারাডোনা, এমনটাও অভিযোগ তুলেছেন মোরলা।

তিনি লিখেছেন, ‘সান ইসিদ্রোর প্রসিকিউটর অফিস থেকে পাওয়া তথ্য মোতাবেক, মৃত্যুর আগে ১২ ঘণ্টার মধ্যেও আমার বন্ধুর জন্য নিয়োজিত কেউ তার কাছে যায়নি। পরে অ্যাম্বুলেন্স আসতেও ত্রিশ মিনিটের বেশি সময় লেগেছে। এটা স্পষ্টত অপরাধমূলক কাজ।’

তদন্তের ব্যাপারে ইঙ্গিত দিয়ে তিনি আরও লিখেছেন, ‘এ বিষয়টা উপেক্ষা করা ঠিক হবে না। আমি শিগগিরই এর প্রেক্ষিতে পূর্ণাঙ্গ তদন্তের আহ্বান করব। কারণ ম্যারাডোনা সবসময় বলত, আমি ওর সৈনিক। কখনও যেন ভুলের ক্ষেত্রে দয়া-মায়া না দেখাই।’

এর আগে ম্যারাডোনার মৃত্যুতে শোকপ্রকাশ করে ভিন্ন এক বার্তায় মোরলা লিখেছেন, ‘কষ্টের এ মুহূর্তে আমি শুধু এটুকুই বলতে পারি, ম্যারাডোনা ছিল শ্রেষ্ঠ সন্তান, ইতিহাসের সেরা ফুটবলার এবং সত্যিকারের একজন সৎ মানুষ। তুমি শান্তিতে ঘুমাও আমার ভাই।’