Home ছবির গ্যালারী এবার এনএসও গ্রুপের বিরুদ্ধে মার্কিন আদালতে অ্যাপল

এবার এনএসও গ্রুপের বিরুদ্ধে মার্কিন আদালতে অ্যাপল

31
0
SHARE

সময়ের চিত্র ডেস্ক:

ভবিষ্যত ঝুঁকি এড়াতে অ্যাপল সফটওয়্যার, সেবা বা ডিভাইস ব্যবহারে এনএসও গ্রুপের উপর নিষেধাজ্ঞাও চাইছে আইফোন নির্মাতা অ্যাপল।

নভেম্বর মাসেই এনএসও গ্রুপকে কালো তালিকাভূক্ত করেছে মার্কিন কর্তৃপক্ষ। পেগাসাস হ্যাকিং টুল ব্যবহার করে সংবাদকর্মী ও অধিকারকর্মীদের উপর বেআইনি নজরদারি চালানোর অভিযোগ রয়েছে এনএসও গ্রুপের বিরুদ্ধে। ইসরায়েলি প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে মুখ খুলেছে মাইক্রোসফট, মেটা প্ল্যাটফর্ম, এবং অ্যালফাবেট ইনকর্পোরেটেডের মতো একাধিক শীর্ষ প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান।

ওই প্রতিষ্ঠানগুলোর পণ্যের নিরাপত্তা ব্যবস্থা পাশ কাটানোর উপায় খুঁজে বের করে তা ডিভাইস হ্যাকিংয়ের টুল হিসেবে বিভিন্ন দেশের সরকারের কাছে বিক্রির অভিযোগ রয়েছে এনএসও গ্রুপের বিরুদ্ধে।

তবে এনএসও গ্রুপ বলছে, কেবল সরকারি আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর কাছেই নিজেদের পন্য বিক্রি করে তারা। পণ্যের অপব্যবহার ঠেকাতে যথাযথ ব্যবস্থা রাখার কথাও বলেছে প্রতিষ্ঠানটি। তাদের হ্যাকিং টুল ব্যবহারের মাধ্যমে “হাজারো জীবন” বাঁচানো সম্ভব হয়েছে বলে দাবি করে থাকে এনএসও গ্রুপ।

“শিশু নিপীড়ক এবং সন্ত্রাসীরা প্রযুক্তির নিরাপদ জগতে ইচ্ছামতো কাজ করে। আমরা সরকারগুলোকে এটি মোকাবেলার বৈধ টুল দেই। এনএসও গ্রুপ সত্যের পক্ষে কথা বলে যাবে।”– এক বিবৃতিতে বলেছেন প্রতিষ্ঠানটির এক মুখপাত্র।

ক্যালিফোর্নিয়ার আদালতে দায়ের করা মামলায় অ্যাপল বলেছে, এনএসও গ্রুপের টুল “২০২১ সালে অ্যাপল ক্রেতাদের টার্গেট করে আক্রমণে” ব্যবহৃত হয়েছে এবং “মার্কিন নাগরিকরা এনএসও’র স্পাইওয়্যারের নজরদারিতে পড়েছেন যা দেশের সীমানা পেরিয়ে যেতে সক্ষম এবং গেছেও।”

অ্যাপল বলছে, সাইবার আক্রমণের জন্য একশ’রও বেশি ভুয়া অ্যাপল আইডি তৈরি করেছিল এনএসও। আইফোন নির্মাতার দাবি, তাদের সার্ভার হ্যাক করেনি এনএসও, তবে অ্যাপলের সার্ভারের অপব্যবহার করে অ্যাপল ক্রেতাদের উপর আক্রমণ চালিয়েছে গ্রুপটি।

এনএসও গ্রুপ সাইবার আক্রমণগুলোতে সক্রিয় পরামর্শকের ভূমিকা পালনের অভিযোগও অ্যাপল তুলেছে বলে জানিয়েছে রয়টার্স। তবে এনএসও গ্রুপ বরাবরই দাবি করে আসছে, তারা কেবল সাইবার টুল বিক্রি করে, ক্রেতার কর্মকাণ্ডে অংশ নেয় না তারা।

“মামলার বিবাদী প্রতিষ্ঠান অস্ত্র প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে অ্যাপলকে বাধ্য করেছে– অ্যাপল যদিও নিজস্ব ডিভাইসের জন্য নিরাপত্তা জটিলতার সমাধান ও উন্নয়ন নিয়ে কাজ করে, বিবাদী প্রতিনিয়ত নিজেদের ম্যালওয়্যার আপগ্রেড করে অ্যাপলের নিজস্ব সিকিউরিটি আপডেটকে পরাস্ত করার চেষ্টা করেছে।”– অভিযোগ অ্যাপলের।

তবে, আইওএস ১৫ ব্যবহারকারী ডিভাইসে এনএসও গ্রুপের টুল ব্যবহারের কোনো ইঙ্গিত এখনও মেলেনি বলে জানিয়েছে অ্যাপল। মামলার ক্ষতিপূরণ হিসেবে পাওয়া অর্থসহ আরও ১ কোটি মার্কিন ডলার সিটিজেন ল্যাবের মতো সাইবার নিরাপত্তা গবেষকদের দান করার কথা জানিয়েছে মার্কিন টেক জায়ান্ট প্রতিষ্ঠানটি।

image_print