খেলাধুলা

আলাদা লক্ষ্যে মুখোমুখি শ্রীলঙ্কা ও নিউজিল্যান্ড

ক্রীড়া ডেস্ক

সেমিফাইনালের টিকিট নিশ্চিত করার লক্ষ্যে নিজেদের শেষ ম্যাচে শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি হবে নিউজিল্যান্ড। শেষ চারের আশা বাঁচিয়ে রাখতে ম্যাচটি যেমন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ কিউইদের জন্য, আর ২০২৫ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে কোয়ালিফাই করতে ঠিক তেমনই গুরুত্বপূর্ণ শ্রীলঙ্কার জন্যও।

বৃহস্পতিবার (৯ নভেম্বর) বেঙ্গালুরুর এম চিন্নাস্বামী ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ম্যাচ শুরু হবে দুপুর আড়াইটায়।

বিশ্বকাপে রাউন্ড রবিন লিগে ৮টি করে ম্যাচ খেলে ফেলেছে সব দল। সবারই বাকি একটি করে ম্যাচ। আর এরই মধ্যে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করে ফেলেছে স্বাগতিক ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকা ও অস্ট্রেলিয়া। সেমির রেস থেকে বাদ পড়েছে বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা, নেদারল্যান্ডস ও ইংল্যান্ড।

সেমিফাইনালের দৌড়ে আর বাকি আছে এক দল। সে দল কোনটি হবে তা নিয়েই এখন চলছে যত হিসাব-নিকাশ। পয়েন্ট টেবিলের চার নম্বরে এখন অবস্থান নিউজিল্যান্ডের। জায়গা পাকাপোক্ত করতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে মাঠে নামবে কিউইরা।

আফগানিস্তান, পাকিস্তান এবং নিউজিল্যান্ড- তিন দলেরই পয়েন্ট সমান ৮। তবে রান রেটে এগিয়ে থেকে চার নম্বরে রয়েছে নিউজিল্যান্ড। অন্যদিকে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির লড়াইয়ে টিকে থাকতে নিউজিল্যন্ডের বিপক্ষে জয় তুলে নিতে মরিয়া শ্রীলঙ্কা।

শ্রীলঙ্কার জন্য মাথাব্যথার বড় কারণ হতে পারেন রাচিন রবীন্দ্র। আসরের সর্বোচ্চ রান স্কোরারের দৌড়ে আছেন এই কিউই ব্যাটার। টুর্নামেন্টে এখন পর্যন্ত রাচিনের ব্যাট থেকে এসেছে তিন সেঞ্চুরি ও দুটি হাফ সেঞ্চুরি। এছাড়া ইনজুরি কাটিয়ে দলে ফিরেছেন কেইন উইলিয়ামসন। শেষ ম্যাচে পাকিস্তানের বিপক্ষে ৭৯ বলে ৯৫ রানের অসাধারন এক ইনিংস খেলেন তিনি। তবে, ইনজুরির কারণে এখনো অনিশ্চিত অলরাউন্ডার জিমি নিশাম।

এদিকে এই ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের চিন্তার কারণ হতে পারেন শ্রীলঙ্কার পেসার দিলশান মাদুশঙ্কা। ২১ উইকেট নিয়ে এই বিশ্বকাপের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি তিনি। তবে, ইনজুরির কারণে টালমাটাল অবস্থা লঙ্কান শিবিরে।

ওয়ানডে বিশ্বকাপে দু’দল ১১ ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে। পরিসংখ্যান কথা বলছে শ্রীলঙ্কার পক্ষে। কিউইদের বিপক্ষে ৬ ম্যাচ জিতেছে তারা। অন্যদিকে ৫ ম্যাচ জিতেছে নিউজিল্যান্ড। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির আশা বাঁচিয়ে রাখতে এ ম্যাচেও কিউইদের হারাতে চায় লঙ্কানরা।

এখন পর্যন্ত ওয়ানডেতে ১০১ বার মুখোমুখি হয়েছে শ্রীলঙ্কা-নিউজিল্যান্ড। এরমধ্যে শ্রীলঙ্কার জয় ৪১টিতে, নিউজিল্যান্ডের জয় ৫১টিতে। একটি ম্যাচ টাই ও আটটি পরিত্যক্ত হয়েছে।

ওয়ানডে বিশ্বকাপে দু’দল ১১ ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে। পরিসংখ্যান কথা বলছে শ্রীলঙ্কার পক্ষে। কিউইদের বিপক্ষে ৬ ম্যাচ জিতেছে তারা। অন্যদিকে ৫ ম্যাচ জিতেছে নিউজিল্যান্ড। গত মার্চে শেষ ওয়ানডেতে মুখোমুখি হয়েছে শ্রীলঙ্কা ও নিউজিল্যান্ড। ঘরের মাঠে তিন ম্যাচের সিরিজ ২-০ ব্যবধানে জিতে নেয় নিউজিল্যান্ড।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button