Home অর্থ ও বানিজ্য রূপকল্প-২০৪১ বাস্তবায়নে শিল্পায়ন ত্বরান্বিতকরণে দেশি বিদেশি বিনিয়োগের শিল্পমন্ত্রী আহবান

রূপকল্প-২০৪১ বাস্তবায়নে শিল্পায়ন ত্বরান্বিতকরণে দেশি বিদেশি বিনিয়োগের শিল্পমন্ত্রী আহবান

58
0
SHARE
Spread the love

নিজস্ব প্রতিবেদক: রূপকল্প-২০৪১ বাস্তবায়নে শিল্পায়ন ত্বরান্বিতকরণে দেশি বিদেশি বিনিয়োগের আহবান জানান শিল্পমন্ত্রী নুরূল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন, এমপি।

তিনি অটোমোবাইল, চিনি, এগ্রো ফুড প্রসেসিং এবং জাহাজ পুণঃপ্রক্রিয়াকরণ শিল্প সম্প্রসারণে অধিকতর জাপানী বিনিয়োগের আহবান জানান।

তিনি বলেন জাপান সরকার ইতোমধ্যে বাংলাদেশে অটোমোবাইল ও সার কারখানা স্থাপনে বিনিয়োগের আশ্বাস প্রদান করেছে, এখাতে অন্যান্য সম্ভাব্য শিল্পে আরও বিনিয়োগের আহবান জানান।

আজ বুধবার মতিঝিলস্থ শিল্প মন্ত্রণালয়ে অফিস কক্ষে বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানের মান্যবর রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকি (Mr. ITO Naoki) এর সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎকালে শিল্পমন্ত্রী এসব কথা বলেন। শিল্প মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (নীতি, আইন ও আন্তর্জাতিক সহযোগিতা) শেখ ফয়েজুল আমীন; মাননীয় মন্ত্রীর একান্ত সচিব (উপসচিব) মোঃ আব্দুল ওয়াহেদ; সিনিয়র সহকারী সচিব (নীতি) মোঃ সলিম উল্লাহ ও জাপান দূতাবাসের হেড অব ইকোনোমিক ডিপার্টমেন্টের প্রথম সচিব হারুতা হিরোকি (Haruta Hiroki) এ সময়ে উপস্থিত ছিলেন। সাক্ষাৎকালে দেশে ব্যাপক শিল্পায়ন ত্বরান্বিতকরণে শিল্প কারখানা স্থাপন ও বিনিয়োগসহ দু’দেশের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে আলোচনা হয়।

শিল্পমন্ত্রী আরও বলেন, জাপান বাংলাদেশের দীর্ঘদিনের অকৃত্রিম বন্ধু রাষ্ট্র। সুদীর্ঘ সময় ধরে শিল্পায়ন, ব্যবসা-বাণিজ্য, সংস্কৃতি, শিক্ষা, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অবকাঠামো উন্নয়নসহ বিভিন্ন বিষয়ে দু’দেশ একে অপরের সাথে কাজ করে যাচ্ছে। পারস্পারিক সহযোগিতার এক্ষেত্রসমূহ আগামীতে আরও বিস্তৃত হবে বলে তিনি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করেন।

সাক্ষাৎকালে জাপানের মিতসুবিশি মটরস কোম্পানী লিমিটেড বাংলাদেশে একটি গাড়ী উৎপাদন কারখানা স্থাপনের লক্ষ্যে ফিজিবিলিটি স্ট্যাডির সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর চূড়ান্ত পর্যায়ে আছে মর্মে জানানো হলে জাপানের রাষ্ট্রদূত এতে সন্তোষ প্রকাশ করেন। এ’মাসের মধ্যে ফিজিবিলিটি স্ট্যাডির (সম্ভাব্যতা সমীক্ষকরণ) সমঝোতা স্মারক হবে মর্মে উভয়পক্ষ আশাবাদ ব্যক্ত করেন। করোনা মহামারি মধ্যেও কর্ণফুলি ফার্টিলাইজার কোম্পানী লিমিটেড (কাফকো) এর সার উৎপাদন চলমান এবং সারাদেশে সার সরবরাহ অব্যাহত রয়েছে মর্মে জানানো হয়। এছাড়াও সারাদেশের সার সংরক্ষণ ও সরবরাহের লক্ষ্যে বাফার গোডাউন নির্মাণের বিষয়টি আলোচনা সভায় অবহিত করা হয়।

বর্তমানে বাংলাদেশে শিল্প কারখানা স্থাপন ও ব্যবসা-বাণিজ্যসহ বিনিয়োগের উপযুক্ত পরিবেশে রয়েছে বলে জানান বাংলাদেশ নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত নাওকি ইতো। তিনি বলেন, বাংলাদেশ সরকার বিদেশি বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগ পরিবেশ সৃষ্টিতে সকল প্রকার সুযোগ-সুবিধা প্রদান করছে। বাংলাদেশ একটি উন্নয়নশীল রাষ্ট্র হিসেবে শিল্প প্রযুক্তি সম্প্রসারণ এবং ব্যবসা-বাণিজ্যে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে এগিয়ে রয়েছে। সিরাজগঞ্জের নতুন সারকারখানা এবং বাংলাদেশে একটি অটোমোবাইল টেস্টিং ও রিসার্চ ইনস্টিটিউট স্থাপনে জাপান সরকারের প্রয়োজনীয় সহযোগিতা চাওয়া হলে জাপানের রাষ্ট্রদূত তাঁর সরকারের সর্বাত্মক সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন।