Home অন্যান্য টাইব্রেকারে স্বপ্নভঙ্গ ইংল্যান্ডের, চ্যাম্পিয়ন ইতালি

টাইব্রেকারে স্বপ্নভঙ্গ ইংল্যান্ডের, চ্যাম্পিয়ন ইতালি

48
0
SHARE

 ক্রীড়া ডেস্ক:

ইটস কামিং হোম’-গানের তালে তালে স্বপ্ন বোনা ইংল্যান্ডের শুরুটা হলো দুর্দান্ত। কিন্তু দুই মিনিটের মধ্যে প্রতিপক্ষের জালে বল পাঠানোর পর হারিয়ে ফেলল পথ। আক্রমণের তোপে ইংল্যান্ডকে ব্যতিব্যস্ত করে তোলা ইতালি সমতা টেনে ম্যাচ নিল টাইব্রেকারে। উত্তেজনায় ঠাসা পেনাল্টি শুট আউটে পার্থক্য গড়ে দিলেন জানলুইজি দোন্নারুমা। ‘ইটস কামিং টু রোম’-এই শ্লোগান সত্যি করে ইউরোপ সেরার মুকুট মাথায় পরলো রবের্তো মানচিনির দল।

লন্ডনের ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে টাইব্রেকারে ৩-২ গোলে জিতে চ্যাম্পিয়ন হলো ইতালি। লুক শয়ের গোলে ইংল্যান্ড এগিয়ে যাওয়ার পর সমতা টানেন লিওনার্দো বোনুচ্চি। নির্ধারিত ৯০ মিনিটের পর অতিরিক্ত সময়ও ১-১ গোলে শেষ হয়।

টাইব্রেকারের গল্পটা অনেকটাই নির্ধারিত সময়ের লড়াইয়ের মতো। ইংল্যান্ড প্রথম দুই শটেই গোল পেল। বিপরীতে ইতালির দ্বিতীয় শট নিতে আসা আন্দ্রেয়া বেলোত্তির প্রচেষ্টা রুখে দেন জর্ডান পিকফোর্ড।

কিন্তু এরপর ইংল্যান্ড লক্ষ্যে পাঠাতে পারল না আর একটিও। ইতালির তিন ও চার নম্বর শটে জাল খুঁজে নেন বোনুচ্চি ও ফেদেরিকো বের্নারদেস্কি। জর্জিনিয়োর নেওয়া তাদের পঞ্চম শটও ঠেকিয়ে দিয়েছিলেন পিকফোর্ড। তারপরও নায়ক হতে পারেননি তিনি।

টাইব্রেকারের কথা ভেবে মার্কাস র‌্যাশফোর্ড ও জ্যাডন স্যানচোকে শেষ মুহূর্তে বদলি নামিয়েছিলেন ইংলিশ কোচ। দুজনেই হতাশ করেছেন। র‌্যাশফোর্ড মারেন পোস্টে আর স্যানচো ও বুকায়ো সাকার শট রুখে দিয়ে শিরোপা নিশ্চিত করেন দোন্নারুমা।পুরো ম্যাচে ৬৬ শতাংশ সময় বল দখলে রেখে গোলের উদ্দেশে ১৯টি শট নেয় ইতালি, যার ছয়টি ছিল লক্ষ্যে। বিপরীতে অধিকাংশ সময় খোলসবন্দী হয়ে থাকা ইংল্যান্ড শট নেয় মাত্র ৬টি, যার দুটি লক্ষ্যে।